Call us : 8801712359913
E-mail: technicalictbd@gmail.com

Approved by Govt of The People's Republic of Bangladesh

Technical ICT Bangladesh

Blog Detail

  • By / Super Admin

কম্পিউটার Keyboard এর শর্টকাট



F1 থেকে F12 পর্যন্ত

যে এক ডজন কি আছে সেগুলোকেফাংশন কি বলা হয়। এখন আসুন জেনে নেয় এই কী গুলোর কাজ কি।

>> F1: সাহায্য (Help). সহায়তাকারী কি হিসেবে ব্যবহূত হয়। F1 চাপলে প্রতিটি প্রোগ্রামের‘হেল্প চলে আসে।

>> F2: নির্বাচিত ফাইল রিনেইম করা। সাধারণত কোনো ফাইল বাফোল্ডারের নাম বদলের (রিনেম) জন্য ব্যবহূত হয়। Alt+Ctrl+F2 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের নতুন ফাইল খোলা হয়। Ctrl+F2 চেপে ওয়ার্ডে প্রিন্ট প্রিভিউ

দেখা যায়।

>> F3: ফাইল খোঁজা। এটি চাপলে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ সহ অনেক প্রোগ্রামের সার্চ সুবিধা চালু হয়। Shift+F3 চেপে ওয়ার্ডের লেখা বড় হাতের থেকে ছোট হাতের বা প্রত্যেক শব্দের প্রথম অক্ষর বড় হাতের বর্ণ দিয়ে শুরু ইত্যাদি কাজ করা হয়।

>> F4: অন্য কোনো ফোল্ডারে ফাইল মুভ করা। ওয়ার্ডের last action performed আবার (Repeat) করা যায় এ কি চেপে। Alt+F4 চেপে সক্রিয় সব প্রোগ্রাম বন্ধ করা হয়। Ctrl+F4 চেপে সক্রিয় সব উইন্ডো বন্ধ করা হয়।

>> F5: বর্তমান উইন্ডো রিফ্রেশ করা। মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, ইন্টারনেট ব্রাউজার ইত্যাদি Refresh করা হয়

F5 চেপে। পাওয়ার পয়েন্টের স্লাইড শো শুরু করা যায়। ওয়ার্ডের find, replace, go to উইন্ডো খোলা হয়।

>> F6 : এটা দিয়ে মাউস কারসারকে ওয়েব ব্রাউজারের ঠিকানা লেখার জায়গায় (অ্যাড্রেসবার) নিয়ে যাওয়া হয়। Ctrl+Shift+F6 চেপে ওয়ার্ডে খোলা অন্য ডকুমেন্টটি সক্রিয় করা হয়।

>> F7: ওয়ার্ড/ এক্সেল ডকুমেন্ট স্পেলিং ডায়লগ ওপেন করা। ওয়ার্ডে লেখার বানান ও ব্যাকরণ ঠিক করা হয় এ কি চেপে। ফায়ারফক্সের Caret browsing চালু করা যায়। Shift+F7 চেপে ওয়ার্ডে কোনো নির্বাচিত শব্দের প্রতিশব্দ, বিপরীত শব্দ, শব্দের ধরন ইত্যাদি জানার অভিধান চালু করা হয়।

>> F8 : অপারেটিং সিস্টেম চালু হওয়ার সময় কাজে লাগে এই কি। সাধারণ উইন্ডোজ Safe Mode-এ চালাতে এটি চাপতে হয়।

>> F9 : কোয়ার্ক এক্সপ্রেস ৫.০-এরমেজারমেন্ট টুলবার খোলা যায় এই কি দিয়ে।

>> F10: মেনু বার চালু করা। ওয়েব ব্রাউজার বা কোনো খোলা উইন্ডোর মেনুবার নির্বাচন করা হয় এ কি চেপে। Shift+F10 চেপে কোনো নির্বাচিত লেখা বা সংযুক্তি, লিংক বা ছবির ওপর মাউস রেখে ডান বাটনে ক্লিক করার কাজ করা হয়।

>> F11: ওয়েব ব্রাউজার পর্দা জুড়ে দেখা যায়।

>> F12 : ওয়ার্ডের Save as উইন্ডো খোলা হয় এ কি চেপে। Shift+F12 চেপে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের ফাইল সেভ করা হয়। এবং Ctrl+Shift+F12 চেপে ওয়ার্ড ফাইল প্রিন্ট করা হয়।


>> CTRL+C: কপি।

>> CTRL+X: কাট।

>> CTRL+V: পেস্ট।

>> CTRL+Z: আনডু।

>> CTRL+B: অক্ষর বোল্ড করা।

>> CTRL+U: অক্ষর আন্ডার লাইন করা।

>> CTRL+I: অক্ষর ইটালিক করা।

>> CTRL+K: হাইপারলিংক ডায়ালগ ওপেন হওয়া।

>> CTRL+ESC: Start menu চালু।

>> CTRL+ Home: ডকুমেন্ট এর শুরুতে যাওয়া।

>> CTRL+ End: ডকুমেন্ট এর শেষে যাওয়া।

>> CTRL+SHIFT+ESC: টাস্ক ম্যানেজার।

>> CTRL+TAB: কোনো প্রোগ্রামের এক উইন্ডো থেকে অন্য উইন্ডোতে যাওয়া।

>> CTRL+F4: একাধিক ডকুমেন্ট ইন্টারফেস সহ কোনো প্রোগ্রাম বন্ধ করা।

>> CTRL+A: ফোল্ডারের সবগুলো আইটেম নির্বাচন করা।

>> SHIFT+ DELETE: সরাসরি ফাইল ডিলিট করা।

>> SHIFT+ right click: অতিরিক্ত শর্টকাট সহ মেনু।

>> SHIFT+ double click: বিকল্প ডিফল্ট কমান্ড।

>> SHIFT+F10: নির্বাচিত আইটেমের জন্য শর্টকাট মেনু।

>> SHIFT: অটোরান বন্ধ করতে এটি চেপে ধরে রাখুন।

>> SHIFT+ Windows Logo + M: মিনিমাইজ আনডু করা।

>> Home: বর্তমান লাইনের শুরুতে যাওয়া।

>> End: বর্তমান লাইনের শেষে যাওয়া।

>> ALT+ F4: প্রোগ্রাম বন্ধ করা।

>> ALT+TAB : অন্য কোনো চালু করা প্রোগ্রামে যাওয়া (সবগুলো প্রোগ্রাম দেখতে ALT চেপে ধরে TAB চাপুন)।

>> ALT+ SPACE: মেইন উইন্ডো’র সিস্টেম মেনু দেখা।

>> Windows Logo +L: কম্পিউটার লক করা।

>> Windows Logo+ M: সব প্রোগ্রাম মিনিমাইজ করা।

>> Windows Logo+F: Files অথবা Folders খোজাঁ।

>> Windows Logo+V: ক্লিপবোর্ড চালু করা।

>> Windows Logo+K: Keyboard Properties ডায়ালগ বক্স চালু করা।

>> Windows Logo+I: Mouse Properties ডায়ালগ বক্স চালু করা।

>> BACKSPACE: পূর্ববর্তী ফোল্ডারে যাওয়া, (ইন্টারনেট ব্রাউজারের ক্ষেত্রে পুর্বের পেইজ